সোনারগাঁওয়ে মাহমুদা বেগমকে কুপিয়ে জখম করেছে ইউপি সদস্য মোর্শেদা বেগম

দৈনিক মুক্ত বাংলাদেশ
Monday, September 20, 2021 | September 20, 2021 WIB Last Updated 2021-09-20T17:23:40Z


সোনারগাঁও প্রতিনিধি

সোনারগাঁওয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মাহামুদা বেগম নামে এক নারীকে  এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে স্বর্ণলংকার লুট  করেছে এমন অভিযোগ উঠেছে পিরোজপুর ইউনিয়নের ১,২,৩ নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য  মোর্শেদা বেগমের বিরুদ্ধে। 

সোমবার  দুপুরে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের  মঙ্গলেরগাও এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মাহামুদা বেগমের ছেলে মোঃ মারুফ বাদি হয়ে মোর্শেদা বেগমকে ১ নং আসামী ও সাথি বেগম, মুনিয়া আক্তার  আরো ২/৩ জনকে অজ্ঞাতনামা  আসামী করে সোনারগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ থেকে জানাযায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের  ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য মাের্শেদা বেগমের নেতৃত্বে সাথি বেগম, মুনিয়া আক্তার ও আরাে অজ্ঞাতনামা ২/৩ জন মঙ্গলেরগাঁও গ্রামে মাহমুদা বেগমের বাড়িতে ঢুকে   পরিকল্পিত ভাবে দেশীয় অস্ত্র ধারালাে দা , বটি , চাকু , ছােড়া , লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মাহমুদা বেগম ও তার মেয়ে মারুফা আক্তারকে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় আশপাশের লােকজন জরো হলে তারা পালিয়ে যায়। পরে আশেপাশের লোকজন  গুরুতর  অবস্থা দেখে মাহামুদা বেগম (৫০) কে সােনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যায়। এছাড়াও আহত মাহামুদা বেগম (৫০) ও মারুফা আক্তার ( ১১ ) সাথে থাকা দু’টি স্বর্নের চেইন নিয়া যায়। যার বাজার মূল্য প্রায় ৯০ হাজার টাকা।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, পিরোজপুর ইউনিয়নের একজন মহিলা মেম্বারের বিরুদ্ধে  একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Comments
comments that appear entirely the responsibility of commentators as regulated by the ITE Law
  • সোনারগাঁওয়ে মাহমুদা বেগমকে কুপিয়ে জখম করেছে ইউপি সদস্য মোর্শেদা বেগম

জনপ্রিয় সংবাদ

Advertisement